যে জিনিস গুলো কখনোই ফ্রিজে রাখবেন না ।।

আমরা বাজার থেকে অতিরিক্ত কিছু কিনে ফ্রিজে রাখে দেই ! ফ্রিজ আমাদের নিত্যদিনের বন্ধু এ কথা বলার অপেক্ষা রাখে না। শাকসবজি, মাছ – মাংস, ফলপাকরা কিংবা পানি অতিরিক্ত কিছু থাকলেই আমারা ফ্রিজে রাখি। অনেকেই ধারনা করে ফ্রজে রাখলেই সব কিছুই ভালো থাকে। কিন্তু কিছু কিছু জিনিস আছে যা ফ্রেজে রাখলে উল্টো নষ্ট হয়ে যায়। আপনাদের সাথে এমন কিছু জিনিস নিয়ে আলোচনা করব যা ফ্রিজে না রাখাই শ্রেয়। চলুন একনজরে জেনে নিন কোন কোন জিনিস ফ্রিজে রাখার প্রয়োজন নেইঃ

refrigerator

  • ঝাল বা হট যে কোন সস
    ঝাল বা হট যে কোনো টাইপের সস ফ্রিজে রাখার কোনো দরকার নাই। কারণ, এটি সারেতিন বছর পর্যন্ত আপনার রুমের স্বাভাবিক তাপমাত্রায় থাকলেই ভালো থাকবে। নষ্ট কিংবা জীবাণুও আক্রমণ করবে না।
  • গোল গোল আলু
    আলু ফ্রিজে রাখলে এর স্বাদ নষ্ট হয়ে যায় এটা হয়তো অনেকেই জানেন। তবে, কাগজের ব্যাগে আলু পেঁচিয়ে রাখলে তাজা ভাব থাকবে প্লাস্টিকের ব্যাগ নয়। এভাবে ২০-২২ দিন পর্যন্ত আলু স্টোর করে রাখতে পারেন সমস্যা হবে না।
  • পাউরুটি
    ফ্রিজে রুটি বা পাউরুটি রাখলে অনেক দ্রুত শুকিয়ে যায়। স্বাদটাও পাল্টে যায়। রুমের তাপমাত্রায় রুটি রেখে দিলে অন্তত তিন দিন পর্যন্ত ভালো থাকবে। তাই রুটিটুটি ফ্রিজে না রাখাই অনেক ভালো।
  • কুমড়া

কুমড়া সুস্বাদু সবজি। আমাদের দেহ ও স্বাস্থ্যের জন্যও খুব উপকারী এই সবজি। আমরা অনেকেই কুমড়া কিনে ফ্রিজে রেখে দেই অতিরিক্ত থাকলে কিংবা পরের দিনগুলোতে খারারের জন্য। কিন্তু এই সবজি আদৌ ফ্রিজে না রাখলেও চলে।ফ্রিজ ছাড়া আপনি বাইরেই রাখতে পারেন ২-৪ দিন।

  • পেঁয়াজ
    পেঁয়াজ ফ্রিজে না রেখে এমন একটি ব্যাগে রাখবেন, যাতে আলো-বাতাস প্রবেশ কারার সুব্যবস্থা থাকে। তবে আলুর সঙ্গে পেঁয়াজ নয়। এতে পেঁয়াজ ও আলু দুটোই পচে যাওয়ার আশঙ্কা থাকবে অল্প সময়েই।
  • মোবাইল ব্যাটারি
    অনেকে বোকার মত ব্যাটারি ফ্রিজে রেখে দেন। তাঁদের ধারণা এমনি, গরমে ব্যাটারি নষ্ট হয়ে যায় তাড়াতাড়ি তাই ব্যাটারির মাথা ঠান্ডা করতে ফ্রিজ ! নিতান্তই হাস্যকর ।। শুধু গরম নয়, ঠান্ডায়ও ব্যাটারি নষ্ট হয়ে যায় তাড়াতাড়ি। তাই ফ্রিজ থেকে ব্যাটারি দূরে রাখুন।
  • কফি
    ফ্রিজে কফি রাখলে কফি জমে যাবে এবং স্বাদ নষ্ট হয়ে যায়। কফি ভালো থাকার একমাত্র উপায় হলো কক্ষের তাপমাত্রায় রাখা। এতে বেশ অনেক দিন কফি ভালো থাকবে।
  • রসুন
    রসুন ফ্রিজে রাখার কি দরকার ! কোনো দরকার নেই। কারণ, ২-২.৫ মাস পর্যন্ত রুমের তাপমাত্রায় রসুন ভালো থাকে। আপনি ঝুড়ির মধ্যেই রসুন স্টোর করতে পারেন। কোনরকম পচে যাওয়ার আশঙ্কা নেই, আর আপনিও থাকুন আশঙ্কা মুক্ত।
  • লালা লালা টমেটো
    টমেটোর স্বাদ এবং রং দুটোই নষ্ট হয়ে যায় ফ্রিজে রাখলে। প্লাস্টিকের ব্যাগে ভুলকরেও টমেটো রাখবেন না, এতে টমেটো পচে যাবে। কাগজের ব্যাগে রুমের তাপমাত্রায় টমেটো রাখাই অনেক ভালো। তিন দিন পর্যন্ত টমেটো ভালো থাকবে।
  • নেইলপলিশ

নেইলপলিস ফ্রিজে রাখলে ঘন হয়ে যায়, আবার সূর্যের তাপ লাগলে শুকিয়ে যায়। তাই নেইলপলিশ সাধারণ তাপমাত্রায় রাখলেই ভালো থাকবে। এতে করে নেইলপলিশ ব্যবহার উপযোগী ও ভালো থাকবে।

  • মধু
    মধু ফ্রিজে রাখার কোনো প্রয়োজন আছে কি ? না নেই।  কারণ, মধু ফ্রিজে রাখলে দানা দানা হয়ে যায়। এটি এমন একটি বোতলে রাখবেন, যার মুখ অনেক শক্ত থাকবে, যেন ভেতরে বাতাস প্রবেশ করতে না পারে। সাধারন তাপমাত্রায়ই রেখে দিন নিশ্চিন্তে মধু।

এই সংক্রান্ত আরও খবর...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *